মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

একটু খাবার হবে খাবার।এই প্রতিধ্বনি নিয়ে ভেড়ামারা উপজেলায় ভীর জমাচ্ছে অসহায় মানুষ।

 

মোঃ শৌভন আহম্মেদ সবুজ নিজস্ব প্রতিনিধি কুষ্টিয়া:

একদিকে মহামারি করোনায় দ্বিতীয় ঢেউ অন্যদিকে দুঃস্থদের ঘরে খাদ্যাভাবের ঢেউ।

সরকারি সাহায্য বা একটু ত্রাণের আশায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রতিদিন এনআইডি কার্ডের ছয়ালিপি হাতে শত শত মানুষের উপস্থিতি। উপস্থিত লোকজন সমস্বরে দাবি করলেন, তাদের কারোর বাড়িতেই খাবার নেই। এদের কেউ স্বামী হারা, কারো কারো নেই সন্তান। তারা জানালেন তাদের অসহাত্বের কথা। তাদের অভিযোগ এলাকার জনপ্রতিনিধিরা তাদের অসহায়ত্বের বিষয়টি বিবেচনায় আনছেননা। লক ডাউনের কারনে তাদের বাড়ির উপার্জনক্ষম পুরুষেরা কর্মহীন। ফলে ঘরে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পাশাপাশি এবার খাদ্যাভাবের ঢেউ। যা সামাল দেয়া খুবই দুষ্কর।

এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার দীনেশ সরকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সম্প্রতি মানবিক সহায়তা হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার মাধ্যমে উল্লেখ যোগ্য সংখ্যক লোকজনের মাঝে সরকারিভাবে বরাদ্দ নগদ ৫০০/= টাকা করে বিতরণ করা হয়েছে।

সরকারের ত্রাণ কার্য চাল এর আওতায় জনপ্রতি ১০ কেজি করে চাল বরাদ্দ ছিল তাও পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে উপকারভোগীদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। পবিত্র ঈদ উল আযহার প্রাক্কালে ভিজিএফ এর চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে ১২৭ মে.টন। ভিজিএফ এর চাল বিতরণের জন্য উপকারভোগীদের নামের তালিকা প্রণয়ন প্রায় চুড়ান্ত। ২/১ দিনের মধ্যেই ভিজিএফ এর জনপ্রতি ১০ কেজি করে চাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে এবং দ্রুত সম্পন্ন করা হবে। এমতাবস্থায়, বাদ পড়াদের বিষয়ে বিশেষ বিবেচনা করে তিনি গত কয়েকদিনে অনেকের এনআইডি নিয়েছেন। সেগুলোর যাচাই বাছাই চলমান আছে। “”

এই অবস্থায় বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌর এলাকা থেকে প্রতিদিনই এনআইডি কার্ডের ফটোকপি হাতে নিয়ে খাবার প্রত্যাশীদের ভিড় ক্রমবর্ধিষ্ণু অবস্থায় লক্ষ্য করা গেছে। সবাই খাদ্য চাচ্ছে। একদিকে মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ অন্যদিকে দুঃস্থদের পরিবারে খাদ্যাভাবের ঢেউ। এদের প্রতি সুদৃষ্টি কামনা করা হলো। ছবি আজ সোমবার বেলা ১১.৩০ মিনিটের। স্থানঃ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদ চত্বর, ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা